• ২১শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ , ৭ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

শাকিবের সঙ্গে দূরত্ব ছিল, বিরোধ ছিল না: অপু বিশ্বাস

ডেস্ক
প্রকাশিত আগস্ট ৫, ২০২৩, ০৫:৩৭ পূর্বাহ্ণ
শাকিবের সঙ্গে দূরত্ব ছিল, বিরোধ ছিল না: অপু বিশ্বাস
সংবাদটি শেয়ার করুন....

শাকিব খান-অপু বিশ্বাসের বর্তমান সম্পর্ক নিয়ে দানা বেঁধেছে জল্পনা। তাদের বিচ্ছেদ হয়েছে কয়েক বছর হলো। তবে এখন তারা সময় পেলেই তাদের ছেলে আব্রাহাম খান জয়কে নিয়ে সময় কাটাচ্ছেন। এই তো সেদিন তিন জন যুক্তরাষ্ট্র ও কানাডা থেকে ঘুরে এসেছেন। সেই ছবি দাবানলের মতো সামাজিক মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে।

এদিকে গুঞ্জন চাউর হয়েছে, ফের নাকি এক হচ্ছেন তারা। অর্থ্যাৎ ফের সংসার করবেন তারা। যদিও এটা নিয়ে মুখ খোলেননি শাকিব। তবে অপু বিশ্বাস বিভিন্ন সাক্ষাৎকারে সম্পর্ক শীথিলতার ইঙ্গিত দিয়েছেন।

সম্প্রতি একটি সাক্ষাৎকারে অপু বিশ্বাস বলেন, ‘আমাদের মধ্যে দূরত্ব ছিল কিন্তু কোনো বিরোধ তো ছিল না। আমার মা-বাবা পৃথিবী ছেড়ে চলে গেছেন। আমি নতুন করে মা-বাবা পেয়েছি। শুধু স্বামী নয়— সন্তান, শ্বশুর-শাশুড়ি, ননদসহ পরিবারের সবাইকে নিয়ে সুন্দর জীবন পার করতে চাই। তাই একটু সময় দিন, সুন্দর সময়ে সুন্দর কথাগুলো বলব।’

শাকিব-অপুর বিয়ে হয়েছিল ২০০৮ সালের ১৮ এপ্রিল। শাকিব খানের উত্তরার বাসায় দুই পরিবারের সদস্যদের উপস্থিতিতে মালা বদল করেছিলেন তারা। যদিও বিয়ের খবরটি গোপন রেখেছিলেন এ জুটি। শুধু বিয়েই না সন্তান জন্মের খবরও গোপন রেখেছিলেন তারা।

২০১৭ সালের ১০ এপ্রিল সন্তানসহ একটি বেসরকারি টেলিভিশনে লাইভে আসেন অপু বিশ্বাস। জানান, ২০১৬ সালের ২৭ সেপ্টেম্বর কলকাতার একটি ক্লিনিকে তাদের সন্তানের জন্ম হয়। নাম রাখা হয় আব্রাহাম খান জয়। ক্যারিয়ারের কথা চিন্তা করেই বিয়ে ও সন্তানের বিষয়টি গোপন রাখেন শাকিব-অপু।

এরপর বিভিন্ন অভিযোগে তিক্ত হয়ে উঠে শাকিব-অপুর সংসার। তার মধ্যে ঢুকে পড়ে চিত্রনায়িকা শবনম বুবলী। ২০১৭ সালের ১৮ মার্চ হঠাৎ করেই শাকিব খানের ছবি শেয়ার করে বুবলী লেখেন, ফ্যামিলি টাইম। এরপর তেলে-বেগুনে জ্বলে ওঠেন অপু বিশ্বাস। মানতে পারেননি পোস্টটি। লাইভে এসে জানিয়ে দেন সবকিছু।

অনেক জল ঘোলা হওয়ার পর ২০১৭ সালের ২২ নভেম্বর বিচ্ছেদের আবেদন করেন শাকিব খান। এটি কার্যকর হয় ২০১৮ সালের ১২ মার্চ। তার ঠিক চারমাস নয়দিন পর বুবলীকে বিয়ে করেন শাকিব খান।