• ২৫শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ , ১১ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

পানিতে ডুবে নাতির মৃত্যু, শোক সইতে না পেরে দাদি খালে ঝাপ দিয়ে নিখোঁজ

ডেস্ক
প্রকাশিত জুন ২০, ২০২৩, ১৬:১৪ অপরাহ্ণ
পানিতে ডুবে নাতির মৃত্যু, শোক সইতে না পেরে দাদি খালে ঝাপ দিয়ে নিখোঁজ
সংবাদটি শেয়ার করুন....

ঝালকাঠির কাঁঠালিয়া উপজেলায় দেবরাজ নামের ১১ বছরের শিশু খালের পানিতে ডুবে মৃত্যুর ঘটনার দুদিন পর শোক সইতে না পেরে একই স্থানে ঝাঁপ দিয়ে দাদি পুষ্প রানী (৬০) নিখোঁজ হয়েছেন।

সোমবার (১৯ জুন) রাত ১০টার দিকে বাড়ির সামনের খালের পানিতে ঝাঁপ দিয়ে তিনি নিখোঁজ হন । নিখোঁজের পর রাতভর তার স্বজন ও এলাকাবাসী অনেক খোঁজাখুঁজি করে ব্যর্থ হয়। পরে আজ মঙ্গলবার সকাল থেকে কাঁঠালিয়া ফায়ার সার্ভিস ইউনিট ও বরিশালের ডুবুরিদল উদ্ধারের জন্য কাজ করেছে।

বিষয়টি কাঁঠালিয়া ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন কর্মকর্তা মো. শহিদুল ইসলাম নিশ্চিত করেছেন।

নিখোঁজ পুষ্প রানী উপজেলার সাতানী বাজার সংলগ্ন পশ্চিম ছিটকী গ্রামের বাসিন্দা ও সাবেক ইউপি সদস্য পরিতোষ মিস্ত্রীর স্ত্রী।

পরিতোষ মিস্ত্রী জানান, গত শুক্রবার দুপুরে বাড়ির সামনের খালে গোসল করতে গিয়ে পানিতে ডুবে নিখোঁজ হয় পরিতোষ মিস্ত্রীর চতুর্থ শ্রেণিতে পড়ুয়া নাতি দেবরাজ। এক দিন পর শনিবার খাল থেকে দেবরাজের মরদেহ এলাকাবাসীর সহায়তায় উদ্ধার করে স্বজনরা। এ ঘটনার পর থেকে নাতি হারানোর শোকে মানসিকভাবে ভেঙে পড়েন তিনি।

সোমবার রাত ১০টার দিকে দেবরাজের দাদি পুষ্প রানী খালের একই স্থান থেকে ঝাঁপ দিয়ে নিখোঁজ হন। ঘটনার পর থেকে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা ও এলাকার শত শত মানুষ তাকে উদ্ধারের জন্য চেষ্টা করছে। তবে এখন পর্যন্ত সন্ধান পাওয়া যায়নি।
কাঁঠালিয়া ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন কর্মকর্তা মো. শহিদুল ইসলাম বলেন, ‘নিখোঁজের খবর পেয়ে আমরা রাতেই ঘটনা স্থলে পৌঁছই।

তবে কেউ নির্দিষ্টভাবে বলতে পারছে না কোন জায়গায় তিনি ডুবেছেন। তার পরও আমরা ও বরিশালের ডুবুরিদল উদ্ধারের জন্য কাজ করছি এবং আমাদের উদ্ধার অভিযান চলমান রয়েছে।’