• ২১শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ , ৭ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

প্রবল বেগে আসছে ‘বিপর্যয়’, বাসিন্দাদের সরাচ্ছে ভারত-পাকিস্তান

ডেস্ক
প্রকাশিত জুন ১৩, ২০২৩, ০৫:৩৯ পূর্বাহ্ণ
প্রবল বেগে আসছে ‘বিপর্যয়’, বাসিন্দাদের সরাচ্ছে ভারত-পাকিস্তান
সংবাদটি শেয়ার করুন....

শক্তি বাড়িয়ে ক্রমশ ভয়াবহ রূপ নিচ্ছে ঘূর্ণিঝড় ‘বিপর্যয়’। ভারতের আবহাওয়াবিদদের পূর্বাভাস অনুযায়ী, আগামী বৃহস্পতিবার আছড়ে পড়তে পারে ঘূর্ণিঝড়। ভারতের সৌরাষ্ট্র ও কচ্ছ উপকূল হয়ে ক্রমশ উত্তরদিকে এগিয়ে পাকিস্তানে চলে যাবে ‘বিপর্যয়’।

এনডিটিভির খবরে বলা হয়েছে, ঘূর্ণিঝড়ের ব্যাপকতা বেশ তীব্র হবে বলে মনে করা হচ্ছে। সেটি সামাল দিতে প্রস্তুত প্রশাসন। ইতোমধ্যে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এ বিষয়ে বৈঠক করেছেন। ‘বিপর্যয়’ মোকাবিলার প্রস্তুতি নিয়ে গুজরাটের মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গেও কথা হয়েছে তার।

ঘূর্ণিঝড় ‘বিপর্যয়ে’র প্রভাবে মুম্বাইয়ে ফুঁসছে সমুদ্র। নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে জুহুর সমুদ্রসৈকতে স্নানে নেমে তলিয়ে যায় ছ’জন। তাদের মধ্যে দু’জনকে উদ্ধার করেন স্থানীয়রা। তবে বাকি দু’জনের খোঁজ পাওয়া যাচ্ছে না।

গুজরাটে সবচেয়ে বেশি ক্ষয়ক্ষতির আশঙ্কা করা হচ্ছে। আবহাওয়া দফতরের সতর্কতা নিয়ে যথেষ্ট চিন্তিত প্রশাসন। সোমবারই একটি বৈঠক করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। গুজরাটের মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে এ বিষয়ে কথাও বলেছেন তিনি।

গুজরাট, মুম্বাইসহ পাকিস্তানের উপকূল এলাকায় যুদ্ধকালীন তৎপরতায় বিপদসঙ্কুল এলাকার বাসিন্দাদের নিরাপদ জায়গায় সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে।

স্থানীয় বাসিন্দাদের নিরাপদ আশ্রয়ে সরিয়ে নেওয়ার কাজও শুরু করেছে ভারত সরকার। গুজরাট ছাড়াও কেরালা, কর্ণাটক, মহারাষ্ট্র ও লাক্ষাদ্বীপের জেলেদের সাগরে না যাওয়ার পরামর্শ দিয়েছে ভারতের আবহাওয়া দফতর।

অন্যদিকে পাকিস্তান সরকারও সিন্ধ ও বালুচিস্তান প্রশাসনকে ঘূর্ণিঝড় সতর্কতা জারি করতে বলেছে। করাচির সিভিউ রাস্তাও বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।