• ২১শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ , ৭ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

হোয়াটসঅ্যাপে মেসেজে আসা লিংকে ক্লিক করার আগে ভাবুন

ডেস্ক
প্রকাশিত জুন ৭, ২০২৩, ০৯:৩৪ পূর্বাহ্ণ
হোয়াটসঅ্যাপে মেসেজে আসা লিংকে ক্লিক করার আগে ভাবুন
সংবাদটি শেয়ার করুন....

বিশ্বের জনপ্রিয় মেসেজিং প্ল্যাটফর্ম হোয়াটসঅ্যাপ। এই অ্যাপের ব্যবহার বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে বেড়েছে প্রতারণা। তাই ব্যবহারকারীদের আরও সতর্ক হওয়া জরুরি। একটু অসাবধান হলেই বিপদের মুখে পড়তে হতে পারে।

হোয়াটসঅ্যাপের অজানা নম্বর থেকে আসা মেসেজ লিংকে ক্লিক করলে সর্বশান্ত হতে পারেন আপনিও। জানুন কীভাবে হোয়াটসঅ্যাপ অ্যাকাউন্ট সুরক্ষিত রাখবেন।

হোয়াট্‌সঅ্যাপে ‘টু-স্টেপ ভেরিফিকেশন’ নামে একটি অপশন রয়েছে। আপনার হোয়াট্‌সঅ্যাপ অ্যাকাউন্ট সুরক্ষিত রাখতে এই অপশনটি ব্যবহার করা জরুরি।

‘টু-স্টেপ ভেরিফিকেশন’ অপশনে ক্লিক করলে আপনাকে ৬ নম্বরের একটি পিন সেট করতে হবে। ওই পিন নম্বরটি ব্যবহার করেই আপনার অ্যাকাউন্ট যাচাই (ভেরিফাই) করা যাবে। যার ফলে আপনার অ্যাকাউন্ট সুরক্ষিত থাকবে। সহজেই অন্য কেউ আপনার অ্যাকাউন্টে হানা দিতে পারবে না।

অনেক সময়ই অজানা নম্বর থেকে মেসেজ পান বলে অভিযোগ করেন হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহারকারীরা। কেউ কেউ আবার সেই মেসেজের জবাবও দেন। আবার অনেকে সেই অচেনা ব্যক্তি বা মহিলার সঙ্গে ভাব জমান। সাইবার বিশেষজ্ঞদের মতে, এটা খুবই বিপজ্জনক।

অর্থাৎ, অজানা নম্বর থেকে মেসেজ পেলে সাবধান! কে মেসেজ করেছেন সে ব্যাপারে ভালো করে জানুন। আর তা সম্ভব না হলে সেই মেসেজ এড়ান। কোনও অচেনা লিংকে ক্লিক করবেন না।

হোয়াটসঅ্যাপে ‘প্রাইভেসি সেটিং’ অপশন রয়েছে। আপনার ডিসপ্লে ছবি, হোয়াটসঅ্যাপ স্টেটাস কারা দেখতে পারবেন, তা নিয়ন্ত্রণ করা যায় ওই অপশনে। নিজের পরিচিত বৃত্তের বাইরে অচেনা কেউ যাতে আপনার হোয়াট‌সঅ্যাপের ডিসপ্লে ছবি না দেখতে পান, তা ওই সেটিংয়ে গিয়ে ঠিক করুন।

হোয়াটসঅ্যাপে নানা ধরনের গ্রুপে আমরা থাকি। সে অফিসের গ্রুপ হোক কিংবা পরিবার, বন্ধুদের গ্রুপ। তবে অনেক সময়ই দেখা যায়, যে কেউ আপনাকে যেকোনো গ্রুপে যোগ করে দেন। এই প্রবণতা ঠেকাতে কারা আপনাকে কোনও গ্রুপে যোগ করতে পারবেন, তা নিয়ন্ত্রণ করা যায় ‘প্রাইভেসি সেটিং’ অপশনে।

অফিসের কাজের জন্য অনেক সময়ই আমরা কম্পিউটার বা ল্যাপটপে হোয়াট্‌সঅ্যাপ ওয়েব ব্যবহার করি। এ জন্য ‘লিংক ডিভাইস’ করতে হয়। তবে কাজ শেষের পর অবশ্যই লগ আউট করা জরুরি।

আপনার হোয়াটসঅ্যাপ অ্যাকাউন্টে গিয়ে ‘লিংক ডিভাইস’ অপশনে নিয়মিত নজর দেওয়ার দরকার। অন্য কোনও ডিভাইসের সঙ্গে আপনার অ্যাকাউন্ট যুক্ত রয়েছে কি না, তা জানা জরুরি।

appযদি দেখেন, আপনার হোয়াট‌সঅ্যাপ অ্যাকাউন্টটি অন্য কোনও ডিভাইসের সঙ্গে যোগ করা রয়েছে অথচ আপনি করেননি, তা হলে সঙ্গে সঙ্গে লগ আউট করতে হবে।

কখনওই হোয়াটসঅ্যাপে অজানা কারও পাঠানো লিংকে ক্লিক করবেন না। যদি দেখেন কোনও সন্দেহজনক মেসেজ বা লিংক পেয়েছেন, সঙ্গে সঙ্গে তা এড়িয়ে চলুন।

হোয়াটসঅ্যাপে কখনও ব্যক্তিগত তথ্য, যেমন ফোন নম্বর, ক্রেডিট বা ডেবিট কার্ডের নম্বর, পাসওয়ার্ড কারও সঙ্গে শেয়ার করবেন না। এই পদ্ধতিগুলো মেনে চললেই হ্যাকার বা অপরাধীদের হাত থেকে হোয়াটসঅ্যাপ অ্যাকাউন্টকে সুরক্ষিত রাখতে পারবেন সহজই।