• ১৩ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ , ৩০শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ঈদ উপলক্ষ্যে গোয়েন্দা সতর্কতা বাড়ানো হচ্ছে : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

admin
প্রকাশিত জুন ১৮, ২০২৩, ১৩:০৭ অপরাহ্ণ
ঈদ উপলক্ষ্যে গোয়েন্দা সতর্কতা বাড়ানো হচ্ছে : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
সংবাদটি শেয়ার করুন....

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, পবিত্র ঈদুল আজহা উপলক্ষ্যে গোয়েন্দা সতর্কতা বাড়ানো হচ্ছে। ফেরিঘাট ও নৌঘাটে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী সতর্ক অবস্থানে থাকবে। ঈদে শিল্প এলাকার নিরাপত্তার ওপরও জোর দেওয়া হবে।

রোববার (১৮ জুন) স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে পবিত্র ঈদুল আজহা ২০২৩ উপলক্ষ্যে সার্বিক আইনশৃঙ্খলা সংক্রান্ত সভা শেষে এসব কথা বলেন তিনি।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, গুরুত্বপূর্ণ রাস্তার মোড় এবং হাটে ওয়াচ টাওয়ার বসবে। সারা দেশের সড়কে-মহাসড়কে হাট বসা নিষেধ থাকবে। সাদা পোশাকে গোয়েন্দা বাহিনীর সদস্যরা মাঠে থাকবেন। পশুহাটে পশু চিকিৎসক থাকবেন। পশু কোনো নির্ধারিত হাটে নেওয়ার জন্য জোর করলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। হাসিলের পরিমাণ সাইন বোর্ডে লেখা থাকতে হবে। ঈদুল আজহা উপলক্ষ্যে গোয়েন্দা সতর্কতা বাড়ানো হবে।

আসাদুজ্জামান খান বলেন, সুনির্দিষ্ট তথ্য ছাড়া কোরবানির পশুবাহী যানবাহন থামানো যাবে না। পশুর হাটে অস্থায়ী পুলিশ ক্যাম্প রাখা হবে, জাল নোট শনাক্ত করার মেশিন ও এটিএম বুথও থাকবে। বাস ও লঞ্চ টার্মিনাল, ফেরিঘাটে গোয়েন্দা সংস্থাগুলো সতর্ক অবস্থায় থাকবে, যাতে মলম পার্টি ও অজ্ঞান পার্টি কোনো কার্যক্রম পরিচালনা করতে না পারে।

মন্ত্রী বলেন, সিসি ক্যামেরার আওতায় থাকবে পশুর হাট। এ বছর সারা দেশে কমবেশি চার হাজার ৩৯৯টি পশুর হাট বসবে বলে আমাদের কাছে খবর এসেছে। এসব হাটে নিরাপত্তা দেওয়ার জন্য ব্যবস্থা নেওয়া হবে। সড়ক-মহাসড়কে যাতে কোনো প্রকারে হাট না বসে, আমরা সে ব্যবস্থাও নেব। পশুবাহী যানটি কোন হাটে যাচ্ছে তা সামনের ব্যানারে লেখা থাকবে। আইনশৃঙ্খলা বাহিনী কিংবা অন্য কেউ পশুবাহী যানবাহন সড়ক-মহাসড়ক কিংবা নৌপথে থামতে পারবে না সুনির্দিষ্ট তথ্য ছাড়া। কেউ থামালে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

তিনি বলেন, ঈদের ছুটিতে সারা দেশে চুরি, ডাকাতি, ছিনতাই ও সন্ত্রাসী কর্যক্রম প্রতিরোধে দৃশ্যমান টহলে থাকবে র‌্যাব। যানজট নিরসনে গুরুত্বপূর্ণ রাস্তার মোড়ে হাইওয়ে পুলিশ ও ব্যাটালিয়ন আনসার থাকবে। যেসব সড়ক যানজটপ্রবণ, সেখানে ওয়াচ টাওয়ার থাকবে। ওয়াচ টাওয়ার থেকে পর্যবেক্ষণ করে যানজট নিরসন করা হবে। সারা দেশে ২৪টি স্থান যানজট ঝুঁকিপূর্ণ বলে চিহ্নিত করা হয়েছে। এসব স্থানে বিশেষ ব্যবস্থা নেওয়া হবে। নিরাপদ ঈদযাত্রার জন্য হাইওয়ে পুলিশ ও জেলা পুলিশসহ আইনশৃঙ্খলা বাহিনী সমন্বয় করে কাজ করবে। ফায়ার সার্ভিসসহ অগ্নিনির্বাপণ ব্যবস্থাও প্রস্তুত থাকবে। মহাসড়কের পার্শ্ববর্তী এলাকায় পশুর হাট বসলে কোনোক্রমেই তা যাতে সড়কের ভেতরে না আসতে পারে সেজন্য ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে। কোনোক্রমেই হাট মহাসড়কের ভেতরে আসতে পারবে না।