সর্বশেষ: আওয়ামী লীগ সরকারের আমলে সংবাদপত্র সবচেয়ে বেশি স্বাধীন পেয়েছে ।-এমপি শাওন সাতক্ষীরার বৈকারী সীমান্ত থেকে ১ কেজি ৫৭০ গ্রাম ওজনের ১০ পিস স্বর্ণের বারসহ আটক -১ সাতক্ষীরার বৈকারী সীমান্ত থেকে ১ কেজি ৫৭০ গ্রাম ওজনের ১০ পিস স্বর্ণের বারসহ আটক -১ আশাশুনিতে যৌতুকের দাবীতে স্বামীর হাতে স্ত্রী জখম আশাশুনি আলিয়া মাদ্রাসায় মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত আশাশুনিতে ইউএনও'র ধান্যহাটি কমিউনিটি ক্লিনিক পরিদর্শন আশাশুনিতে ইউএনও'র ধান্যহাটি কমিউনিটি ক্লিনিক পরিদর্শন আশাশুনিতে ইউএনও'র ধান্যহাটি কমিউনিটি ক্লিনিক পরিদর্শন লালমনিরহাটে পানিতে ডুবে স্কুলছাত্রের মৃত্যু লালমনিরহাটে পানিতে ডুবে স্কুলছাত্রের মৃত্যু

মেসির ক্লাব ছেড়ে যাওয়ার সমীকরণগুলো কি কি?

প্রকাশ: 26 August, 2020 11:57 : AM

বার্সেলোনার হয়ে এমন কোনো ট্রফি নেই যা জেতেননি মেসি, বার্সা আর মেসি যেনো সমার্থক তারপরও কেন ক্লাব ছাড়তে চাইছেন মেসি?
কাতালান ক্লাবটায় পথচলার শুরু সেই ২০০৪ সালে। তখনই সবাই জানতো হরমোনের সমস্যা পেছনে ফেলে টিস্যু পেপারে যেই ছেলেটাকে সাইন করিয়েছে বার্সা একদিন সেই হবে বিশ্বসেরা। হয়েছেও তাই। বার্সেলোনার আর মেসি একে অপরের সমার্থক তারপরও কেন ক্লাব ছাড়তে চাইছেন লিওনেল মেসি? যাওয়ার সমীকরণটাই বা কি?

ফুটবলটা যারা খেলে বা খেলায় বেশিরভাগেরই উত্তর সর্বকালের সেরা ফুটবলার লিওনেল মেসি। বার্সেলোনার হয়ে হেন কোনো ট্রফি নাই যা জেতেননি এলএমটেন।

বার্সেলোনা আর মেসি একে অপরের সমার্থক। হঠাৎই কেন চির ধরলো সম্পর্কে? সমস্যাটা যতটা না ক্লাবের সাথে তার চেয়েও বেশি বোর্ড প্রেসিডেন্ট আর ডিরেক্টরদের আচরণে। বিরক্ত হয়েই তাই ক্লাব ছাড়ার সিদ্ধান্ত মেসির।

খবরের পাতায় হেডলাইন। স্পটলাইট শুধুই মেসির বার্সেলোনা ছাড়ায়। ইউরোপের সব পত্রিকার শিরোনাম কিংবা সেরা সাংবাদিকদের টুইট। বিষয়বস্তু ওই একই। শুধু তাই না, বার্সেলোনার সাবেক প্রেসিডেন্ট লাপোর্তা বা আসছে দিনের প্রেসিডেন্ট ক্যান্ডিডেট ভিক্টর ফন্ট সবারই অভিযোগের তীর ক্লাবটির বর্তমান সভাপতি বার্তেমেউ এর দিকে।

তবে, আলাদা করে নজর কেড়েছে মেসিকে শুভেচ্ছে জানিয়ে মেসির সাবেক সতীর্থ ও বার্সা খেলোয়াড় কার্লোস পুয়োলের ট্যুইট। যাতে আবার হাততালি দিয়েছেন খোদ সুয়ারেজ।

সমীকরণ বলে চাইলে প্রতি মৌসুম শেষে নিজের ইচ্ছায় ক্লাব ছাড়ার সিদ্ধান্ত নিতে পারেন মেসি। চুক্তিতে আছে এমন ক্লজ। তবে, সেটা বার্সাকে জানাতে হবে মে মাসের মধ্যে। কেননা, এরপরই শুরু হয় ছুটি।

সমস্যাটাও এখানেই। মেসির বাই আউট ক্লজ ৭০০ মিলিয়ন। বার্সার কথা বিনা পয়সায় ওকে ছাড়া হবে না। মেসির আইনজীবিদের বক্তব্য, করোনায় বদলেছে পরিস্থিতি। আগস্টেও চ্যাম্পিয়ন্স লিগ খেলেছেন তিনি। তাই চলতি মাসে জানানো ফ্যাক্সটাই যথেষ্ট।

সব কথার শেষ কথা। মেসি আর বার্তেমেউ বার্সেলোনায় এক সাথে দুজনের থাকা আর হচ্ছে না। তবে, ক্লাবের সর্বকালের সেরা খেলোয়াড়কে রেখে দিতে আসছে বছর মেয়াদ শেষ হতে যাওয়া বার্তেমেউ ইস্তফা দিতেই পারেন। তাহলেই হয়তো থেকে যাবেন মেসি, বেঁচে যাবে বার্সেলোনা।