সর্বশেষ: কৃষকদের মাঝে প্রণোদনার ঋণ বিতরণে অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করলেন সোনালী ব্যাংক বরিশালের জিএম ঝালকাঠিতে মাক্স বিতরন করলো রোটারী ক্লাব ঝালকাঠিতে নাগরিক অ্যাডভোকেসি ফোরামের কমিটি গঠন হিমু সভাপতি, রিজভী সম্পাদক মহান বিজয় দিবস উদযাপনে নলছিটিতে প্রস্তুতিমুলক সভা ফকরুল মজিদ মাহমুদ কিরনের জন্মদিনে রিজভীর শুভেচ্ছা আশাশুনিতে ভূমিহীন গৃহহীনদের গৃহ নির্মাণ কাজ পরিদর্শনমুজিব বর্ষ উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণা গৃহহীন থাকবে না শরনখোলার লোকালয় থেকে অজগর উদ্ধার করে সুন্দরবনে অবমুক্ত। দুধ কেনার পয়সা নেই মিসরির পানি খেয়ে বেঁচে মা হারা শিশু ঈশান নলছিটির ভারপ্রাপ্ত ইউএনও করোনায় আক্রান্ত ঝালকাঠি সরকারি কলেজের সহযোগী অধ্যাপক ইলিয়াস বেপারীর জন্মদিন আজ

ইন্টারনেট সেবা নিয়ে গ্রাহক ভোগান্তি সহসাই কমছে না

প্রকাশ: 11 May, 2020 5:02 : AM

করোনায় ইন্টারনেট সেবা নিয়ে গ্রাহক ভোগান্তি সহসাই কমছে না। নিরবচ্ছিন্ন ইন্টারনেট সেবা দিতে তিনমাসের জন্য অতিরিক্ত তরঙ্গ চেয়েছে রবি, বাংলালিংক ও টেলিটক। তরঙ্গ দিতে প্রস্তুত নিয়ন্ত্রক সংস্থা-বিটিআরসি। তবে বাধ সাধছে আর্থিক বিষয়টি। অতিরিক্ত তরঙ্গ বিনামূল্যে চায় এই তিন অপারেটর। তবে আর্থিক ছাড় দিতে চায় না নিয়ন্ত্রক সংস্থা।
করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ রোধে দেশে চলমান সাধারণ ছুটির মধ্যে ইন্টারনেটের ব্যবহার বেড়েছে ৩০ শতাংশ। বিটিআরসির হিসাবে বর্তমানে দেশে ৯ কোটির বেশি মানুষ ইন্টারনেট ব্যবহার করছেন। গ্রাহক তুলনায় অপারেটরদের নেই প্রয়োজনীয় তরঙ্গ। এতে নিরবচ্ছিন্ন গ্রাহক সেবা দিতে হিমশিম খাচ্ছে মোবাইল অপারেটররা।
এ অবস্থায় তিনমাসের জন্য অতিরিক্ত তরঙ্গ চেয়ে বিটিআরসির কাছে আবেদন করেছে, রবি, বাংলালিংক ও টেলিটক। তবে আর্থিক ছাড় চেয়েছে তারা। অপারেটরদের যুক্তি করোনায় সরকারের অনুরোধে ইন্টারনেট প্যাকেজের দাম কমানো অথবা বাড়তি ডেটা দেওয়া হচ্ছে। অন্যদিকে ভয়েস কল কমায় আর্থিক ক্ষতির মুখে পড়েছে অপারেটররা। এ অবস্থায় উচ্চমূল্যে তরঙ্গ কেনার অবস্থায় নেই তারা।
রবি হেড অব রেগুলেটরি অ্যান্ড কর্পোরেট অ্যাফেয়ার্স সাহেদ আলম বলেন, ডাটা প্রাইজ আমরা সরকারের কথা মত কমিয়েছি ফলে আমাদের রেভিনিউ কিন্তু ডাউন।
বাংলালিংক চিফ কর্পোরেট অ্যান্ড রেগুলেটরি অ্যাফেয়ার্স অফিসার তাইমুর বলেন, সার্ভিস যদি আমরা ভালো দিতে পারি তাহলে ব্যবহার বাড়বে। আর ব্যবহার বাড়লে আমাদের রেভিনিউ বাড়বে।
তিন অপারেটরের আবেদনকে বাস্তবসম্মত নয় বলে মন্তব্য করেছে বিটিআরসি।
বিটিআরসি চেয়ারম্যান জহুরুল হক বলেন, টাকা কম করার ক্ষমতা বিটিআরসির নাই। গত নিলামের রেট অনুযায়ী যত ইচ্ছা নিতে পারে। তবে কেউ যদি বাল্ক নেয়, সবকিছু নেয় তাহলে তাকে কম রেটে দিতে পারবো।
করোনায় ইন্টারনেটকে জরুরি সেবা হিসেবে উল্লেখ করে সরকারকে স্বল্পকালীন তরঙ্গ বরাদ্দের বিষয়টি গুরুত্বের সাথে বিবেচনার আহ্বান জানিয়েছে মোবাইল অপারেটররা।